প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষকদের বেতন নিয়ে সুখবর

দীর্ঘ প্রত্যাশার পর দেশের সব সরকারি প্রাথমিক সহকারী শিক্ষকরা প্রধান শিক্ষকের পরের গ্রেডে বেতন পাবেন বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন।
রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে গত শুক্রবার (১ ফেব্রুয়ারি) ‘বঙ্গবন্ধু প্রাথমিক শিক্ষক পরিষদ’আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এ কথা জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেনকে সংবর্ধনা দেয় বঙ্গবন্ধু প্রাথমিক শিক্ষক পরিষদ।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সাধারণ সম্পাদক এসএম আব্দুল গফুর নতুন সরকারি হওয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য দূর করা, প্রধান শিক্ষকদের সম্মানের সঙ্গে পদ ফেরত দেয়াসহ ১০ দফ দাবি জানান।

সুনির্দিষ্ট দাবির বিষয়ে গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা শিক্ষক, আপনাদের সুযোগ-সুবিধা দেখা হবে। প্রধান শিক্ষকদের দশম গ্রেড এবং সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড দেয়া হবে। আর যেসব দাবি আপনারা করেছেন, তা সবই পর্যায়ক্রমে পূরণ করা হবে। আপনারা প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া করেন।’

অনুষ্ঠানে নতুন সরকারি হওয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১০ দফা দাবির বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রাথমিক শিক্ষকদের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করেছেন, এখন জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আবারও প্রাথমিক শিক্ষকদের জন্য কাজ করছেন। আগে বঙ্গবন্ধু প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারি করেছেন, এরপর করেছেন জাতির জনকের কন্যা, আর কেউ করবে না। আমি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বসে আপনাদের সমস্যার সমাধান করব। সমস্যা থাকবে না।’

অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়েরর অতিরিক্ত সচিব ড. তরুণ কান্তি শিকদার বলেন, ‘সরকার শিক্ষকদের মান উন্নয়নে কাজ করছে।’ তিনি জানান, সরকার এরইমধ্যে নতুন প্রকল্প গ্রহণ করেছে। প্রাথমিক শিক্ষকরা দেশের বাইরে প্রশিক্ষণ নেয়ার সুযোগ পাবেন বলেও জানান তিনি।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য মো. সাইফুজ্জামান শিখর, বঙ্গবন্ধু প্রাথমিক শিক্ষক পরিষদের সভাপতি মো. আব্দুর রহমান বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক এস এম আব্দুল গফুর, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মীর মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিনসহ শিক্ষক নেতারা।