কাজলের সঙ্গে এখনও সংসার টিকে যাওয়ার রহস্য জানালেন অজয়

দেখতে দেখতে দাম্পত্য জীবনের ২০ বছর পার করে ফেললেন অজয়-কাজল জুটি। ২৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৯ সালে সাত পাকে বাঁধা পড়েছিলেন। তারপর থেকে ভালোমন্দ মিশিয়ে সুখী দাম্পত্য জীবন কাটাচ্ছেন অজয়-কাজল। তাদের দুই সন্তানও রয়েছে। মেয়ে নাইসা ও ছেলে যুগ। বলিউডে যখন চোখের সামনেই বহু বিয়ে ভাঙতে দেখা যায়, তখন তাদের এই সুখী দাম্পত্যের রহস্য সকলের সঙ্গে শেয়ার করেছেন অভিনেতা তথা প্রযোজক অজয় দেবগন।

ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমকে অজয় জানান, আমাদের দাম্পত্যের সবচেয়ে ভালো বিষয় হলো, আমরা যেটা যে নয়, সেটা কখনওই একে অপরের কাছে জাহির করার চেষ্টা করিনি। সম্পর্কে আমরা দুজনেই দুজনকে স্পেস দেওয়ার চেষ্টা করেছি সবসময়। যখন ওর নিজের মতো করে সময় কাটানোর দরকার পড়েছে তখন আমি ওকে (কাজল) দিয়েছি। আবার যখন আমার নিজের মতো সময় কাটানোর প্রয়োজন হয়েছে তখন ও (কাজল) আমায় কখনও বিরক্ত করেনি। অনেক সময় এমনও ঘটেছে, আমরা দুজনেই একই ঘরে রয়েছে, ও ওর মতো করে কাজ করছে, আর আমি আমার, দুজনে হয়ত কথাও বলিনি, অসুবিধা হয়নি কখনও। আবার একসঙ্গেও সময় কাটিয়েছি। একসঙ্গে সেই সমস্ত মানুষগুলির সঙ্গেই থাকা যায়, যারা বিচক্ষণ। আর এই কারণে আমরা এতো বছর একসঙ্গে রয়েছি। সম্পর্কে একে অপরকে স্পেস না দিলে কখনওই একসঙ্গে থাকতে পারবেন না।”

অজয় আরও জানান, ”কাজ আর আমার মধ্যে একটা সুন্দর বন্ধন রয়েছে। যেখানে আমরা একে অপরের সঙ্গে সমস্ত কিছু শেয়ার করতে পারি। আমরা যদি বাড়িতেও থাকি, আমরা সেখানেও একে অপরের সঙ্গে সুন্দর সময় কাটাই।”

১৯৯৯ সালে প্রথা মনে মারাঠী রীতিতে সাত পাকে বাঁধা পড়েয় অজয় দেবগন ও কাজল। যদিও তাদের কথায়, তাঁরা কখনওই সম্পর্কে একে অপরকে আলাদা করে প্রেম নিবেদন করেননি। তাঁদের একমাত্র মেয়ে নাইসার বয়স ১৬ বছর। বেশকিছুদিন আগে অজয় জানিয়েছিলেন নাইসা অভিনয়ে আসতে এক্কেবারেই ইচ্ছুক নয়। ও একটু অন্যরকম কিছু করতে চায়। তবে ভবিষ্যতে যদি ও অভিনয়ে আসতেও চায়, তাহলেও আমার কিছু বলার নেই। নাইসা ছাড়াও অজয় কাজলের এক পুত্র সন্তানও রয়েছে যুগ, যে এখন ৮ বছরের।